1. billalhossain@cumillardak.com : দৈনিক কুমিল্লার ডাক : দৈনিক কুমিল্লার ডাক
  2. : admin :
  3. Editor@gmail.com : Comillar Dak : Comillar Dak
  4. Noman@cumillardak.com : Noman :
কুমিল্লা গোমতী নদীর পাড়ে বেপরোয়া গতির মোটরসাইকেল : জনজীবনে আতংক - দৈনিক কুমিল্লার ডাক
মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ১১:০২ পূর্বাহ্ন
Title :
“কুমিল্লার হোমনায় ব্যবসায়ী হত্যা : আদালতের ঐতিহাসিক রায়ে ৭ জনের মৃত্যুদ- ও ৭ জনের যাবজ্জীবন” চৌদ্দগ্রামে বিদেশ প্রত্যাগত অভিবাসীদের পুনঃএকত্রীকরণে সেমিনার চৌদ্দগ্রামে দুর্নীতি বিরোধী বিতর্ক ও রচনা প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ ঈদের আগে জাল টাকার ছড়াছড়ি : ক্রেতা-বিক্রেতারা আতঙ্কে চৌদ্দগ্রামে বজ্রপাতে মাটিকাটার শ্রমিক নিহত হারানো পরিবারের সন্ধানে মোহাম্মদ ইয়াসিন: এক দশক পরেও মা’কে খুঁজছেন চৌদ্দগ্রামে ৬০ কেজি গাঁজা সহ কাভার্ডভ্যান জব্দ দেবীদ্বারে কিশোরী ধর্ষণ মামলার আসামী গ্রেপ্তার দেবীদ্বার উপজেলা প্রেসক্লাবের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত “আনারসের জোয়ারে উত্তাল কুমিল্লা সদর দক্ষিণ : ইঞ্জিনিয়ার রিপনের বিজয়ের প্রত্যয়ে মুখরিত জনতা”

কুমিল্লা গোমতী নদীর পাড়ে বেপরোয়া গতির মোটরসাইকেল : জনজীবনে আতংক

সহিদুল ইসলাম সাকিব :
  • Update Time : বুধবার, ১৫ মে, ২০২৪
  • ৩১১৪ Time View

কুমিল্লা স্থল বন্দরের গোমতী নদীর পাড়ের সড়কে বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল চালানোর ফলে জনজীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। শুধু বড় শহরেই নয়, পুরো দেশে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মৃত্যুর ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে। বেপরোয়া গতি, আইন না মানার প্রবণতা, ঝুঁকিপূর্ণ নৈপুণ্য প্রদর্শনের চর্চা এবং হেলমেট ব্যবহার না করার কারণেই এই দুর্ঘটনা ঘটছে। সড়কে সচেতনতার অভাব এবং সংশ্লিষ্ট সবার সতর্কতা ও সচেতনতা অপরিহার্য।

সড়ক–মহাসড়কে সংঘটিত দুর্ঘটনাগুলোর একটি বড় অংশ মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা। মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার প্রধান কারণগুলোর মধ্যে রয়েছে বেপরোয়া চালনা, মাত্রাতিরিক্ত গতি, আইন না মানা এবং চালকদের সঠিক প্রশিক্ষণ না থাকা। লাইসেন্স বা দক্ষতা অর্জন ছাড়াই রাস্তায় মোটরসাইকেল নিয়ে বের হচ্ছেন অনেকে। বেপরোয়া গতি ও হেলমেট ব্যবহার না করার প্রবণতা বাড়াচ্ছে প্রাণহানি। দুর্ঘটনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে কিশোররা। এখন যত মানুষ সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান, তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয় কিশোর মোটরসাইকেল আরোহীদের।

সরকার সারাদেশের সড়কে কোন গাড়ি সর্বোচ্চ কত গতিতে চলতে পারবে, তা নির্ধারণ করে দিয়েছে। কিন্তু একই সড়কে বিভিন্ন ধরনের গাড়িকে ভিন্ন গতিতে চলতে বলা হয়েছে। লেনভিত্তিক গতি আলাদা করা হয়নি। সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, এতে সড়কে শৃঙ্খলা না ফিরে বরং গতির ভিন্নতার কারণে দুর্ঘটনার ঝুঁকি বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। সড়কে সবচেয়ে আলোচিত মোটরযান মোটরসাইকেল চালানোর গতি সড়কের মান ভেদে ভিন্ন ভিন্ন নির্ধারণ করে দিয়েছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। সিটি করপোরেশন, পৌরসভা, জেলা সদর ও শহর এলাকায় মোটরসাইকেলের সর্বোচ্চ গতি ঘণ্টায় ৩০ কিলোমিটার নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। একইভাবে যাত্রীবাহী গণপরিবহন, পণ্যবাহী যান, ব্যক্তিগত গাড়ির ক্ষেত্রে গতিসীমা নির্ধারণ করা হয়েছে। জরুরি পরিস্থিতিতে সব গাড়ির ক্ষেত্রে আইন শিথিল থাকবে।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © comillardak.com