1. billalhossain@cumillardak.com : দৈনিক কুমিল্লার ডাক : দৈনিক কুমিল্লার ডাক
  2. : admin :
  3. Editor@gmail.com : Comillar Dak : Comillar Dak
  4. Noman@cumillardak.com : Noman :
নির্মাণ কাজে ইটের বিকল্প পরিবেশ ও কৃষি বান্ধব ব্যয়সাশ্রয়ী ব্লক ব্যবহারে আগ্রহ বাড়ছে কুমিল্লায় - দৈনিক কুমিল্লার ডাক
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৭:০৭ অপরাহ্ন
Title :
তিতাসে দেলোয়ার হোসেন পলাশের শুভেচ্ছা বিনিময় ঢাকায় ঢুকতে দেওয়া হচ্ছেনা চামড়াবাহী ট্রাক আওয়ামী লীগের পক্ষে কাজ করায়, সেচ্ছাসেবক লীগ নেতার আঙ্গুল কর্তন! দেবীদ্বারে ছবি তোলাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের পাল্টাপাল্টি হামলায় আহত-১০ ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান ও মোটর সাইকেল ভাংচুর তিতাসে জাগ্রত একতা সংঘের সভাপতি শফিকুল ইসলামকে সংবর্ধনা দেবীদ্বারে আগ্নেয়াস্ত্রসহ ডাকাত দলের ১ সদস্য গ্রেফতার চান্দিনায় শ্রমিক অবরোধ : পারিশ্রমিকের দাবিতে মহাসড়ক স্তব্ধ কুমিল্লায় ডিবি পুলিশের অভিযানে ৫২ কেজি গাঁজাসহ দুই মাদক কারবারি গ্রেফতার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে শ্রমিক আন্দোলনে যানজট চৌদ্দগ্রামে গাঁজা-ইয়াবা উদ্ধার, কথিত সাংবাদিকসহ আটক ১৩

নির্মাণ কাজে ইটের বিকল্প পরিবেশ ও কৃষি বান্ধব ব্যয়সাশ্রয়ী ব্লক ব্যবহারে আগ্রহ বাড়ছে কুমিল্লায়

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ৩৪৬৬ Time View

নির্মাণ কাজে ইটের বিকল্প পরিবেশ ও কৃষি বান্ধব ব্যয়সাশ্রয়ী ব্লক ব্যবহারে আগ্রহ বাড়ছে কুমিল্লা

মাহফুজ বাবু;
ভাটায় তৈরি পোড়া মাটির ইটের পরিবর্তে পরিবেশ বান্ধব, দামে সাশ্রয়ী, মজবুত ও টেকসই হলোব্লক ব্যবহার করে ভবন ও গৃহ নির্মাণে আগ্রহ বাড়ছে কুমিল্লায়। সাম্প্রতিক সময়ে কুমিল্লায় ব্যবসায়ী ও প্রবাসীদের অনেকেই নিজস্ব ভবন নির্মাণে ব্যবহার করছেন পরিবেশ বান্ধব সিমেন্ট, বালু ও গুড়ো পাথরের মিশ্রণে তৈরী ইটের বিকল্প হলোব্লক। দেশের উন্নয়ন কর্মকান্ডে পোড়া ইটের ব্যাপক ব্যবহারের ফলে প্রতি বছর শতকরা ১ভাগ হারে কৃষি জমি হ্রাস পাচ্ছে। চলমান পরিস্থিতিতে ভবিষ্যতে দেশে খাদ্য নিরাপত্তা ও উৎপাদন ব্যাহত ও পরিবেশ দূষণ আশংকাজনক ভাবে বৃদ্ধি পাবে বলে মনে করছেন গবেষকরা। ২০১৪ সালের ২৮ ডিসেম্বর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় পরিদর্শন কালে বেশকিছু নির্দেশনা প্রদান করেন। নির্দেশনার অন্যতম একটি বিষয় মাটির তৈরি ইটের বিকল্প । আশ্রয়ন প্রকল্পে এবং পল্লী জনপদ প্রকল্পে ফেরোসিমেন্টের ব্যবহার শুরু করারও নির্দেশনা দেয়া হয়। নদী ড্রেজিংকালে যে বালি পাওয়া যায় তা দিয়ে হলোব্লক তৈরী করা যায় কিনা সে বিষয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষার নির্দেশনাও দেয়া হয়। দেশে বর্তমানে পাকা দালান বা গৃহ নির্মাণে বহুল ব্যবহৃত পোড়ামাটির ইটের চেয়ে কংক্রিটের এসব ব্লক অনেক সাশ্রয়ী হওয়ায় নির্মাণ ব্যায়ও তুলনামূলক অনেক কম হয়। বর্তমানে যেখানে প্রতিটি মাটির তৈরি ভালো ইটের দাম ১০থেকে ১১টাকা সেখানে একটি ব্লকের খরচ পরে ৩৭-৩৮ টাকা। ১৬টি ইটের সমান ৩টি ব্লক। সে হিসেবে ১০০০ইটের পরিবর্তে ১৮৮টি ব্লকের খরচ পরছে সর্বোচ্চ সারে ৬ থেকে ৭হাজার টাকা।

মালয়েশিয়া থেকে দেশে এসে নির্মাণ শ্রমিক হিসেবে কাজ করছেন রবিউল আউয়াল। বুড়িচংয়ের কাবিলা এলাকার নির্মাণ শ্রমিক রবিউল বলেন, ইটের চেয়ে ব্লক ব্যবহারে সুবিধা অনেক। ব্লকের গাঁথুনিতে সময় কম লাগে কাজ হয় দ্রুত, তাছাড়াও তুলনামূলক কম সিমেন্ট ও বালু খরচ হয় এবং দেয়ালের প্লাস্টারের স্থায়ীত্ব ও কাজ সুন্দর হয়।
বুড়িচং উপজেলার চানগাছা এলাকার সৌদি আরব প্রবাসী ফয়েজ আহমেদ দেশে এসেছেন কিছুদিন আগে। সৌদি আরবে ব্লক তৈরির কারখানায় কাজ করেছেন দীর্ঘদিন। দেশে এসে পরিকল্পনা অনুযায়ী ছোট পরিসরে শুরু করেছেন ব্লক তৈরির কারখানা। এক লাখ ৪০হাজার টাকা দিয়ে দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি একটি ব্লক তৈরির মেশিন কিনে বাড়ির সামনেই শুরু করেছেন ব্লক তৈরির কাজ। নিজের বাড়ি নির্মাণে ব্যবহার করছেন ব্লক। পাশাপাশি তার প্রবাসী ছোট ভাইয়ের বাড়ি নির্মাণের জন্যও ব্লক সরবরাহ করছেন তিনি। তিনি জানান, বর্তমানে সিলেকশন বালুর দাম একটু বেশী হওয়ায় প্রতিটি ব্লক তৈরিতে সবসহ খরচ হচ্ছে ৩৪ থেকে ৩৬ টাকার মত। প্রতিটি ব্লকের দৈর্ঘ্য ১৬ ইঞ্চি প্রস্থ ৮ ইঞ্চি এবং পুরুত্ব সারে ৪ইঞ্চি। পোড়ামাটির ইটের তুলনায় ব্লক ব্যবহার অনেক লাভজনক। এসব হলোব্লক দিয়ে তৈরি দেয়ালে প্লাস্টার ডেমেজের সম্ভাবনাও থাকে না। কৃষি জমির মাটি নিধন বন্ধ এবং ইটভাটার ধোয়ায় পরিবেশের ব্যাপক ক্ষতি থেকে রক্ষা করতে ভবনের নির্মাণকাজে ব্লক ব্যবহারের বিকল্প নেই। খুব শীঘ্রই বড় পরিসরে কাবিলা বাজারের পাশে বড় পরিসরে ব্লক তৈরির কারখানা চালু করবেন বলে জানান তিনি। উপজেলার সৈয়দপুর এলাকায় আরেক প্রবাসীও তার দোতলা ভবনের পুরো কাজ করেছেন ইটের পরিবর্তে ব্লক দিয়ে। খরচ সাশ্রয়ী ও নির্মাণের গুনগত মান ভালো হওয়ায় দেখাদেখি আশেপাশের আরো অনেকেই আগ্রহী হয়ে উঠেছেন ভবন নির্মাণ কাজে ব্লক ব্যবহারে।

বুড়িচং উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ আলিফ আহাম্মেদ বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে আগামী দিনগুলোতে পোড়ানো ইট ব্যবহারের ক্ষতিকর দিকসমূহ সরকারী নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করে পরিবেশ ও কৃষিবান্ধব উন্নয়নের লক্ষ্যে বিকল্প নির্মাণ উপকরণ ব্যবহার করে পোড়ানো ইটের ব্যবহার ক্রমান্বয়ে কমিয়ে শুন্যে নিয়ে আসা। আামাদের দেশে সব ধরণের পাকা বাড়ি নির্মাণে মাটি পোড়ানো ইটের ব্যবহার সর্বাধিক। প্রচলিত পদ্ধতিতে ইট নির্মাণে যে মাটি ব্যবহার হয় তা কৃষি জমির উর্বর অংশ বা উপরিভাগ থেকে সংগ্রহ করা হয়। যার ফলে আমাদের কৃষি জমির পরিমাণ দিন দিন কমে যাচ্ছে যা আমাদের খাদ্য নিরাপত্তাকে হুমকির সম্মুখীন করে তুলছে। ইট তৈরিতে কৃষি জমির উপরিভাগের উর্বর মাটি বহুল ব্যবহৃত হয় এবং প্রচুর পরিমাণ জ্বালানী প্রয়োজন হয় যা দেশের বনজ সম্পদ এবং কৃষি জমি হ্রাসের অন্যতম কারণ। অপরদিকে কনক্রিট হলো ব্লক Concrete Hollow Block বিভিন্ন ধরণের ভারবাহী বা অ-ভার বাহী দেয়াল নির্মাণের কাজে ব্যবহৃত হয়। বড় সাইজের এ কনক্রিট ব্লক ব্যবহারের ফলে সংযোগ সংখ্যা কমবে এবং মর্টার এর ব্যবহার কম হবে। হলো ব্লক ভাল অন্তরক হিসাবে কাজ করে এবং শব্দ, তাপ ও আদ্রতা প্রতিরোধক। ২০% সিমেন্ট এবং ৮০% বালি মিশিয়ে এই ব্লক তৈরী করা হয়। এটি ব্যবহারে সুবিধা হলো কৃষি জমি ও বনজ সম্পদরে অপচয় রোধ। কোন জ্বালানীর প্রয়োজন হয় না। পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট করে না । সারা বছর ব্যাপী উৎপাদন করা সম্ভব। শব্দ শোষন ক্ষমতা বেশি অগ্নি ও তাপ নিরোদক অধকি র্কাযক্ষম। স্থায়ত্বিকাল ও কাঠামোগত ভারসাম্য বেশি। নিসন্দেহে এটি একটি ভালো দিক, ইটের পরিবর্তে এসব ব্লক ব্যবহারে উৎসাহ জোগাতে আমরাও প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছি।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category
© All rights reserved © comillardak.com